রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১১:৪১ পূর্বাহ্ন

ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে জাপা মহাসচিবের ক্ষোভ

  • প্রকাশের সময় : ০৮/০৫/২০২৪ ১২:৪০:১৬
এই শীতে ভাঙন আতঙ্কে দিন কাটছে তাদের
Share
47

সংসদ সদস্যদের ভাতা নিয়ে সোশ্যাল মাধ্যমে স্ট্যাটাস দেওয়ার জের ধরে স্বতন্ত্র এমপি সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনকে (ব্যারিস্টার সুমন) একহাত নিলেন জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ও বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মুজিবুল হক চুন্নু। তিনি আলোচিত এই সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ারও দাবি জানিয়েছেন।


মঙ্গলবার (৭ মে) জাতীয় সংসদে অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনকে ইঙ্গিত করে মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, আমাদের হাউজের একজন সংসদ সদস্য, নামটা বলতে চাই না। তিনি নতুন নির্বাচিত হয়েছেন।


তিনি ফেসবুকে যে বক্তব্য দিয়েছেন তাতে আমরা সবাই ভুক্তভোগী।


সংসদ সদস্যদের ভাতা নিয়ে এমপি সুমনের সোশ্যাল মাধ্যমে স্ট্যাটাস দেওয়ার বিষয়টি তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘তিনি বলেছেন, আপনারা জানেন এমপিরা কত টাকা বেতন পান? তারা তো বলে না, গোপন করে। তিনি বলেছেন ১ লাখ ৭২ হাজার টাকা বেতন (মাসিক) পেয়েছেন। আমরা কত টাকা বেতন পাই তা লুকানোর কিছু নেই, ওয়েবসাইটে গেলে পাওয়া যাবে।


তিনি আরও বলেছেন, তিন মাসের মধ্যে ২৮ কোটি টাকা বরাদ্দ পেয়েছি। সেটা কীভাবে পেলেন, গমের জন্য তিন কোটি টাকা। আর বাকি ২৫ কোটি টাকা পেয়েছেন রাস্তার জন্য।’


স্পিকারকে উদ্দেশ করে মুজিবুল হক বলেন, এই ২৮ কোটি টাকা কি আমি পেয়েছি, আপনি (স্পিকার) পেয়েছেন? প্রধানমন্ত্রী পেয়েছেন? ইতোমধ্যে ফেসবুক দেখে আমাকে অনেকেই বলছেন ২৮ কোটি টাকা পেয়েছেন, এই টাকা কই? তিনি বলেছেন ২৫ কোটি টাকা পেয়েছেন, কিন্তু আমরা তো পাইনি।


স্থানীয় সরকারের মাধ্যমে পাঁচ বছরে ২০ কোটি টাকা সংসদ সদস্যদের অনুকূলে বরাদ্দ দেওয়ার কথা উল্লেখ করে বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ বলেন, এইবার বলেছেন পাঁচ বছরের জন্য ২৫ কোটি টাকার প্রকল্পের নাম দেওয়ার জন্য। আগামী ৫ বছরের জন্য কয়টা প্রকল্প করবো তার নাম দিয়েছি আমরা। টাকার সঙ্গে তো আমার কোন সম্পর্ক নেই। আমরা নাম দেই, স্থানীয় সরকার বিভাগ জরিপ করে, টেন্ডার করে, তারপর বাস্তবায়ন করে। কিন্তু সংসদ সদস্য বলছেন আমরা ২৫ কোটি টাকা বরাদ্দ পেয়েছি।


শুধু তাই না, তিনি আরও বলেছেন এমপি হলে যদি এত লাভ হয়, তাহলে আরও আগে এমপি হতাম।


স্পিকারকে উদ্দেশ করে জাপা মহাসচিব বলেন, আপনি হলেন এই সংসদের অভিভাবক। আমাদের কোনো সদস্য যদি এমন কোন কথা বলেন, যে কথায় প্রধানমন্ত্রী, স্পিকারসহ ৩৪৯ জন এমপি (সায়েদুল হক সুমন ছাড়া) সম্পর্কে ভুল বার্তা যাবে। তার সস্তা জনপ্রিয়তা অর্জন করার জন্য যদি এ ধরনের কথায় ভুল বার্তা যায়, বিষয়টা আপনি দেখতে পারেন। আমরা এখানে অনেক কথা বলবো, বিতর্ক করবো। এমন কথা বলার অধিকার নেই যাতে ৩৪৯ এমপির ইজ্জত যাবে। তাদের সম্পর্কে মানুষের কাছে ভুল বার্তা যাবে। তাই অভিভাবক হিসেবে ওই সংসদ সদস্যকে ডেকে কী করবেন, এটা ব্যবস্থা নেবেন।


সিলেট প্রতিদিন / এসএএম


Local Ad Space
কমেন্ট বক্স
© All rights reserved © সিলেট প্রতিদিন ২৪
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরি