রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:৪৫ পূর্বাহ্ন

টুইটারের নতুন সিইও লিন্ডা ইয়াকারিনো

  • প্রকাশের সময় : ১৩/০৫/২০২৩ ০৩:৫৭:০৭
এই শীতে ভাঙন আতঙ্কে দিন কাটছে তাদের
Share
44

নতুন প্রধান নির্বাহীর নাম ঘোষণা করেছেন টুইটারের মালিক ইলন মাস্ক। মাইক্রোব্লগিং সাইটটির বহুল আলোচিত অধিগ্রহণের প্রায় ছয় মাস পরে এই পদে নতুন মুখ আনলেন মাস্ক। এতোদিন গুরুত্বপূর্ণ এই দায়িত্ব তিনিই সামলাচ্ছিলেন।

শুক্রবার এক টুইটে এই শীর্ষ ধনী বলেন, এনবিসি ইউনিভার্সালের বিজ্ঞাপন বিভাগের সাবেক প্রধান লিন্ডা ইয়াকারিনো এই সাইটটির ব্যবসায়িক কার্যক্রম তদারকিতে নেতৃত্ব দেবেন।

নতুন পদে লিন্ডা যোগ দিতে আরও দেড় মাস সময় নিলেও এই ঘোষণা সেবাটিতে বিজ্ঞাপনদাতাসহ বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারের মনে ভরসা যোগাবে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট।

সিইও’র চলতি পদ ছেড়ে মাস্ক নির্বাহী চেয়ারম্যান ও প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

‌‘এই প্ল্যাটফর্মটিকে বহুমুখী অ্যাপ এক্স-এ রূপান্তর করতে লিন্ডার সঙ্গে কাজ করার জন্য মুখিয়ে আছি’ - টুইটে লেখেন মাস্ক।

আগের দিনই তিনি টুইটারের জন্য ‘নতুন বস’ খুঁজে পেয়েছেন বলে এক টুইট করেন। সেখানে কোনো নাম উল্লেখ না করায় এটি নানা জল্পনার খোরাক হয়ে ওঠে।

গত বছর চার হাজার চারশ কোটি ডলারে প্রভাবশালী এই সামাজিক মাধ্যম প্ল্যাটফর্মটি কেনার পর থেকেই এর জন্য নেতৃত্ব খুঁজে নেওয়ার চাপ ছিল মাস্কের ওপর, যাতে করে তিনি বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাতা টেসলা এবং রকেট নির্মাণ কোম্পানি স্পেসএক্সসহ তার অন্যান্য ব্যবসায় মনোযোগ দিতে পারেন।

কে এই লিন্ডা ইয়াকারিনো?

ফরচুন ৫০০ তালিকাভূক্ত প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোর মধ্যে মাত্র ৯ শতাংশেরও কম পরিচালিত হচ্ছে নারী নেতৃত্বে। সে দৃষ্টিকোণ থেকে কয়েকটি শীর্ষ মার্কিন কর্পোরেশনে কাজ করার সঙ্গে সঙ্গে সাফল্যের সিঁড়ি বেয়ে উঠে যাওয়া ইয়াকারিনো এক বিরল দৃষ্টান্ত হয়ে উঠবেন বলে প্রতিবেদনে লিখেছে বিবিসি।

পেনসিলভানিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটির (পেন স্টেট) এই স্নাতক সর্বশেষ এনবিসি ইউনিভার্সে কাজের আগে ১৫ বছর ছিলেন আরেক মার্কিন মিডিয়া জায়ান্ট টার্নার এন্টারটেইনমেন্টে। সেখানে প্রায় দুই হাজার কর্মীর নেতৃত্ব দেওয়ার পাশাপাশি তিনি এর স্ট্রিমিং পরিষেবা চালুর সঙ্গেও জড়িত ছিলেন।

পূর্ববর্তী পদগুলোর মধ্যে তার কাজের তালিকায় ছিল বড় ব্র্যান্ডগুলোর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ও সহযোগিতা বজায় রাখা, পণ্য প্রচারের সুযোগ খুঁজে বের করা এবং টেলিভিশন শোগুলোয় বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য তাদের রাজি করানো। এমনকি ‘সেক্স অ্যান্ড দ্য সিটি’র মতো প্রাপ্তবয়স্ক শো’র বেলাতেও তিনি সাফল্যের ছাপ রেখেছেন।

২০০৫ সালে পেশাজীবীদের এক প্রকাশনায় তাকে চিহ্নিত করা হয়েছিল। দুই সন্তানের এক একজন ব্যস্ত, কর্মজীবী মা। সে সময় তার সন্তানদের বয়স ছিল ১৩ এবং ৯ বছর।

সে সময় তিনি বলেছিলেন, তার ‘কোনো হবি নেই’।

বিজ্ঞাপন বিষয়ে গভীর জ্ঞান রয়েছে মিজ ইয়াকারিনো’র যা থেকে টুইটার লাভবান হবে বলে বিবিসি উল্লেখ করেছে। তার এই অভিজ্ঞতা সম্ভবত টুইটারের সবচেয়ে বেশি দরকার। টুইটারের পুরো আয় আসে বিজ্ঞাপন থেকে আর ইলন মাস্কের হাতে যাওয়ার পর থেকে সে আয়ে ধস নেমেছে।


সিলেট প্রতিদিন / এমএনআই


Local Ad Space
কমেন্ট বক্স
© All rights reserved © সিলেট প্রতিদিন ২৪
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরি