দাউদপুরে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় স্বামী আটক
বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ১০:৪২ পূর্বাহ্ন

দক্ষিণ সুরমা প্রতিনিধি

প্রকাশ ২০২১-০৯-২৪ ০৬:১৩:৩২
দাউদপুরে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় স্বামী আটক

দক্ষিণ সুরমা উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের তিরাশীগাঁও প্রকাশিত কোনারচরপুর গ্রামের এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। গত বুধবার সন্ধ্যার পর সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

নিহত গৃহবধূ রুমি বেগম এক সন্তানের জননী। রুমি কোনারচর গ্রামের মৃত লাল মিয়ার ছেলে খোকন মিয়ার স্ত্রী। গৃহবধূর মৃত্যুটি হত্যা না আত্মহত্যা এ নিয়ে এলাকায় গুঞ্জন সৃষ্টি হয়েছে।

স্বামীর পরিবারের লোকজন জানান, রুমি বেগম সন্ধ্যার সময় ঘরের তীরের সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করে। এ সময় বাড়ির লোকজন তাকে ঝুলন্ত অবস্থা থেকে উদ্ধার করে রুমির স্বামী ও পরিবারের লোকজন প্রথমে নর্থইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার রুমি বেগমকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যেতে পরামর্শ দেন। তারা রুমিকে ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন। ভর্তির কিছু সময় পর ডাক্তার রুমিকে মৃত ঘোষণা করেন।

রুমির বাড়ির লোকজন হাসপাতালে আসলে গৃহবধূর স্বামী খোকন মিয়া ভয়ে হাসপাতালে লাশ রেখে মোগলাবাজার থানায় হাজির হয়ে তার স্ত্রী রুমি বেগম আত্মহত্যা করেছে বলে জানায়। এসময় থানা পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আটক করে।

গতকাল বৃহস্পতিবার ময়নাতদন্ত শেষে রুমি বেগমের লাশ তার বাবার বাড়ি লোকজন সিলেট সদর উপজেলা এয়ারপোর্ট থানার কান্দিগাঁও ইউনিয়নের সাহেবেরবাজার গ্রামে নিয়ে দাফন করেন।

এ ব্যাপারে মোগলাবাজার থানা অফিসার ইনচার্জ সামসুদ্দোহা পিপিএম জানান, নিহত রুমি বেগমের স্বামী খোকন মিয়াকে আটক করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে জানা যাবে রুমি বেগমকে হত্যা করা হয়েছে, না-কি তিনি আত্মহত্যা করেছেন। এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

উল্লেখ্য, গত বুধবার সকালে খোকন মিয়া স্ত্রী রুমিকে সাথে নিয়ে মোগলাবাজারে বোনের বিয়ের কেনাকাটার উদ্দেশ্য যান। খোকন মিয়া মোগলাবাজারের একজন মোরগ ব্যবসায়ী। রুমির সাথে তার ২ বছর আগে বিয়ে হয়েছে। তাদের এক বছর বয়সী একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

সিলেট প্রতিদিন/এমএনআই

ফেসবুক পেইজ