শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৬:৫৫ পূর্বাহ্ন

কুশিয়ারার ভাঙনে বিপাকে ১০ গ্রামের মানুষ

  • প্রকাশের সময় : ১৯/১১/২০২৩ ০১:৩০:৩৮
এই শীতে ভাঙন আতঙ্কে দিন কাটছে তাদের
Share
50

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জ-হলিকোনা বাজারের একমাত্র রাস্তা নদী ভাঙ্গনে বিলীন হওয়ার সম্ভবনা দেখা দিয়েছে। এ রাস্তা ভেঙ্গে গেলে যোগাযোগের ক্ষেত্রে বিচ্ছিন্ন হওয়ার উপক্রম হয়েছে। বিপাকে পড়বে ১০ গ্রামের প্রায় কয়েক হাজার জনসাধারন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বাগময়না গ্রামের সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, সরকারী কমিউনিটি ক্লিনিক, সহ শতাধিক বাড়িঘর ও ফসলি জমি হুমকি মুখে রয়েছে। নদীভাঙ্গন কবলিত রাস্তাটি রক্ষার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে এলাকার মানুষ চলাচল করতে পারবেনা। বিগত দশ বছর ধরেই এই রাস্তটি ঝুঁকিপূর্ণ। নভেম্বর মাস এলেই সড়কের বিভিন্ন স্থানে ভাঙণ দেখা দেয়। ফলে ইতিমধ্যে ১০ জনের বসতবাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। কিন্তু বাঁধের ভাঙণরোধে স্থায়ী কোনো পদক্ষেপ নেননি সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্তারা। তাই রাস্তটির ভাঙণ অব্যাহত রয়েছে। 

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, হাওর রক্ষা বাঁধের উপর ইট সলিং করে জনসাধারন চলাচল করেন। এই বাঁধ নির্মাণের ফলে উপজেলার বাগময়না, গন্ধর্ব্বপুর, স্বজনশ্রী, বাউধরনের প্রায় হাজার হাজার পরিবার প্রতি বছর বন্যার ক্ষতি থেকে রক্ষা হয়। এছাড়াও এই বাঁধের ওপর দিয়ে  ১০টি গ্রামের মানুষ যাতায়াত করে থাকেন। 

স্থানীয়রা জানায়, রানীগঞ্জ ইউনিয়ন ও চিলাউড়া হলদিপুর ইউয়িনের বাগময়না, আটহাল, খাগাউড়া, স্বজনশ্রী, বাউধরন, সালদিকা সহ বেশ কয়েকটি গ্রামের যোগাযোগের জন্য একমাত্র রাস্তা বাগময়না গ্রামের রাস্তা। চলতি মাসের শুরু থেকে বাগময়না এলাকায় ইদ সলিং রাস্তা ভেঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হতে চলেছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে রাস্তাটি ভাঙ্গন রোধ করা না হলে রাস্তার পাশাপাশি কয়েকটি গ্রামের কয়েক হাজার জনসাধারনের চলাচল বন্ধ হয়ে যেতে পারে। কিছু দিন আগে এই গ্রামের সাবেক চেয়ারম্যানের বাড়ী সহ আশে পাশের কয়েকটি বাড়ী নদী ভাঙ্গনে বিলীন হয়ে যায়। 

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শেখ ছদরুল ইসলাম জানান, গত কয়েক দিন আগে বাগময়না গ্রামের সড়কে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও স্থানীয় মেম্বার সহ নদী ভাঙ্গনের স্থান পরিদর্শন করে আসি। এ রাস্তা একটু দুরে আরেকটি বাঁধ নিমার্ণ করা হবে। যাতে করে রাস্তা সহ হাওর রক্ষায় সড়কটি কাজে লাগে। অল্প দিনের মধ্যে কাজ শুরু করতে পারবো বলে আশা করি।


সিলেট প্রতিদিন / ইকে


Local Ad Space
কমেন্ট বক্স
© All rights reserved © সিলেট প্রতিদিন ২৪
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরি