বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:০৬ পূর্বাহ্ন

সরকারী নিবন্ধন নাম্বার ৯৩

Sylhet Protidin 24


সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ও আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী

সুজাত মনসুর

প্রকাশ ২০২৩-০১-১৮ ০১:২১:২০
আনোয়ার/ছবি

সুজাত মনসুর :

বঙ্গবন্ধু কন্যা ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা মাঝে মধ্যেই চমক দিতে পছন্দ করেন। এই চমকের পেছনেও তাঁর বিচক্ষণতার পরিচয় পাওয়া যায় এবং অধিকাংশ ক্ষেত্রেই এর ফলাফল ইতিবাচক হয়। আসন্ন সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর নাম আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে তাঁর মুখে উচ্চারিত হওয়া বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গন বিশেষ করে সিলেট ও যুক্তরাজ্যের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নিকট অপ্রত্যাশিত ও পিলে চমকানো বৈকি। তবে বিষয়টি অপ্রত্যাশিত হলেও অবিবেচনাসুলভ নয় বলেই মনেকরি। 

স্বাধীনতোত্তর সিলেট পৌরসভার প্রথম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন বাবরুল হোসেন বাবুল। তিনি তখন সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক। কিন্তু আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী ছিলেন এনামুল হক চৌধুরী বীরপ্রতীক।। পরবর্তীকালে বাবুলকে হারিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আ ফ ম কামাল চেয়ারম্যান হন ও একসময়  বিএনপিতে যোগদান করেন। 

১৯৯৫ সালে আওয়ামী লীগ বদর উদ্দিন আহমেদ কামরানকে  প্রার্থী করে চেয়ারম্যানের পদটি পুনরুদ্ধার করে। সিলেট পৌরসভা সিটি কর্পোরেশনে উন্নত হলে কামরান প্রথমে ভারপ্রাপ্ত তারপর পরপর দুইবার বিপুল ভোটে মেয়র নির্বাচিত হন। কিন্তু তাঁকে পরের দুই নির্বাচনে বিএনপি আরিফুল হক চৌধুরীর নিকট পরাজিত হতে হয় আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে ব্যাপক উন্নয়নের পরও। করোনা আক্রান্ত হয়ে বদর উদ্দিন আহমেদ কামরানের মৃত্যুর পর স্বাভাবিক কারনেই আগামী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী নিয়ে জল্পনা কল্পনা ছিল বেশ কয়েকজন ব্যক্তিকে নিয়ে।

তাদের মধ্যে অন্যতম, মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আসাদ উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ।  সবাই ধরেই নিয়েছিলেন এই তিনজনের মধ্যেই একজন হবেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী। 

কিন্তু হঠাৎ করেই স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীর মুখে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর নাম সকল হিসাব পাল্টে দিয়েছে। আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর নিকটও বিষয়টি অপ্রত্যাশিত। কেননা, তিনি গত এক যুগ ধরে ওসমানীনগর ও বিশ্বনাথ উপজেলা নিয়ে গঠিত সংসদীয় আসন সিলেট-২ থেকে সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হওয়ার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। সেখানে তার বিশাল কর্মী, সমর্থক ও শুভাকাঙ্ক্ষী তৈরি হয়েছে। তিনি স্বপ্নেও ভাবেননি মেয়র প্রার্থী হিসেবে তার নাম চলে আসবে। দলীয় সভাপতি যদি তাকে প্রার্থী করেন তাহলে তা মেনে নেওয়া ছাড়া কোন উপায় নেই, ফলাফল যাইহোক না কেন? 

শুরুতে বলেছি, বঙ্গবন্ধু কন্যার এ ধরনের ঘোষণা অবিবেচনাসূলভ নয়, বরং বিচক্ষণতার পরিচয়। কেননা, সাংগঠনিক দক্ষতার দিক থেকে তাঁর যোগ্যতা অন্যদের চেয়ে কোন অংশে কম নয়। অতি সহজেই মানুষের সাথে মিশে যাওয়ার ক্ষমতা রয়েছে। বড়দের প্রতি রয়েছে সম্মান ও শ্রদ্ধা। একজন রাজনৈতিক কর্মী বা নেতার যে বৈশিষ্ট্য তা শতভাগ খুঁজে পাওয়া যায় আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর চরিত্রে। 

আমি তাকে চিনি-জানি সে যখন ওসমানীনগর উপজেলার বুরুঙ্গা হাইস্কুলের ছাত্র। উল্লেখ্য, আনোয়ারুজ্জামানের প্রাথমিক শিক্ষা সিলেট নগরীর রায় নগর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এবং উচ্চ মাধ্যমিক সিলেট সরকারি কলেজ থেকে। প্রবাসী হওয়ার কারনে লেখাপড়ার ওখানেই ইতি টানতে হয়। বুরুঙ্গা হাইস্কুলে পড়াকালীনই আনোয়ার চম্পাকলি খেলাঘর আসর ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সক্রিয় কর্মী ও সংগঠক হিসেবে নিজের স্থান করে নেয়। তারপর সিলেট সরকারি কলেজে থাকাকালীন ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় ভূমিকা রাখে। 

লন্ডনে এসে জড়িয়ে পরে যুবলীগকে সংগঠিত করার কাজে। গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার কারণে প্রথমে সাধারণ সম্পাদক ও পরে সভাপতি নির্বাচিত হয়। যুক্তরাজ্যে যুবলীগের বিশাল কর্মী বাহিনী গড়ে তোলার পেছনে আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর রয়েছে ঐতিহাসিক অবদান। সাংগঠনিক দক্ষতা ও নেতৃত্ব গুণে আনোয়ার বর্তমানে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে সেনা সমর্থিত তত্বাবধায়ক সরকার গ্রেফতার করার পর তাঁর মুক্তির দাবিতে যুক্তরাজ্যব্যাপি আন্দোলন গড়ে তোলার ক্ষেত্রে তার ছিল গুরুত্বপূর্ণ অগ্রণী ভূমিকা। 

আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর রাজনীতির মূল ক্ষেত্র যুক্তরাজ্য হলেও সিলেটের রাজনীতিতে সে একজন পরিচিত মুখ। বিশেষ করে বিগত সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বদর উদ্দিন আহমেদ কামরানের পক্ষে, সংসদ নির্বাচনে ড. মোমেনের পক্ষে ও সিলেট-৩ এর উপ নির্বাচনে হাবিবুর রহমান হাবিবের পক্ষে তার অবদান কোন অংশেই কম ছিল না। তার সতীর্থদের মধ্যে শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল বর্তমানে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও হাবিবুর রহমান হাবিব সিলেট-৩ এর সাংসদ।সুতরাং সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর মেয়র পদে প্রার্থীতা নিয়ে কোন ধরনের প্রশ্ন উত্থাপন করার সুযোগ নেই।

লেখক: সাংবাদিক সুজাত মনসুর।

সিলেট প্রতিদিন/ এসএল

Local Ad Space

বিজ্ঞাপন স্থান


পুরাতন সংবাদ খুঁজেন

ফেসবুক পেইজ

সিলেটে অবৈধ ট্রাভেল এজেন্সির ছড়াছড়ি : ৩ মাসে...

সিলেটে আ.লীগের শান্তি সমাবেশ হবে কেন্দ্রীয়...

কোম্পানীগঞ্জে সাংবাদিকদের সাথে নবাগত ওসি’র...

নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সহযোগিতায় ৩শ মানুষের...

নবীগঞ্জে অবৈধভাবে মাটি কাঁটায় লাখ টাকা জরিমানা

হবিগঞ্জে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেসীতে মামলা...

লক্ষ্য স্থির করে কাজ করলে সফলতা অবশ্যই আসবে...

জকিগঞ্জে ঈসালে সওয়াব মাহফিল বাস্তবায়নে...

কলেজের নামাঙ্কিত জমিদার মদন মোহন দাসের...

বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্যের প্রতিবাদে...

ওসমানীতে চালু হচ্ছে হার্ট ফেইলিওর কর্ণার ও শিশু...

সিলেটে অবৈধ ট্রাভেল এজেন্সির বিরুদ্ধে অভিযান,...

সাংবাদিক সামিউল’র পিতার মৃত্যু বার্ষিকীতে...

ধর্মপাশায় যুগান্তরের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী...

হবিগঞ্জে ট্রেন থেকে নামতে গিয়ে কাটা পড়ে নির্মাণ...

দেশে গরুর চেয়ে ছাগল বেশি

লালাবাজারে ১ম চেয়ারম্যান কাপ ফুটবলের উদ্বোধন

দুই আসনেই হারলেন হিরো আলম

শাবির লোকপ্রশাসনের নতুন বিভাগীয় প্রধান ড....

শাবির লোকপ্রশাসনের নতুন বিভাগীয় প্রধান ড....

লালাবাজার দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে...

অল্প ভোটে হেরে গেলেন হিরো আলম

কাজী মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম কলেজে নবীন বরণ

শেয়ারে দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগ করলে মুনাফা সম্ভব :...

কমলগঞ্জে জুয়ারিদের হামলায় পুলিশসহ আহত ৫ : আটক...

লতিফা-শফি চৌধুরী মহিলা ডিগ্রি কলেজে...

ইমজার নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দকে সিলেট জেলা...

বাংলা একাডেমি পুরস্কার তুলে দিলেন...

চলতি বা আগামী অধিবেশনে ওষুধ আইন পাস হবে:...

ধর্মপাশায় শিশুদের সাথে আনন্দ উৎসব

মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম’র কবিতা -আত্মজিজ্ঞাসা

সিলেট আইডিয়াল কলেজের নবীন বরণ অনুষ্ঠান

ধ্রুব গৌতম’র ছড়া- চিত্রলেখা

আজ বিশ্ব হিজাব দিবস

শায়েস্তাগঞ্জে ট্রাক্টর চাপায় যুবক নিহত

বিজ্ঞাপন স্থান