সিলেেট মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডের মানববন্ধন ও সমাবেশ
রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:৩১ অপরাহ্ন

প্রতিদিন ডেস্ক

প্রকাশ ২০২১-১০-২০ ০৭:৩০:৪৩
সিলেেট মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডের মানববন্ধন ও সমাবেশ

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ভাস্বর বঙ্গবন্ধুর সংবিধান ফিরিয়ে দিন, মওদুদিবাদ, ওহাবিবাদ ও ধর্মের নামে রাজনীতি অবিলম্বে বন্ধ করুন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে অবিলম্বে ‘সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন’ ও জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠন করুন দেশব্যাপী পরিকল্পিত সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার, শাস্তির দাবিতে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সিলেট জেলা ও মহানগর ইউনিটের উদ্যোগে মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বুধবার (২০ অক্টোবর) বিকাল ৩টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারের সামনে এই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

সিলেট জেলা ইউনিট কমান্ডের সাবেক কমান্ডার ও ৭১ এর ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি সিলেটের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সুব্রুত চক্রবর্তী জুয়েলের সভাপতিত্বে ও সাংস্কৃতিক আহ্বায়ক অংশুমান দত্ত অঞ্জন এবং মো: সাজ্জাদ আলীর যৌথ পরিচালনায় মানববন্ধন ও সমাবেশে প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা ছাদ উদ্দিন আহমদ, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালিক, বীর মুক্তিযোদ্ধা সুবল চন্দ্র পাল, বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী এস. এম নাজিম, অধ্যাপক শফিকুর রহমান, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক, এডভোকেট মৃত্যুঞ্জয় ধর ভোলা, গোপিকা শ্যাম পুরকায়স্থ চয়ণ, সাজিদুর রহমান সোহেল, সিরাজুল ইসলাম সুরুকী, বিষ্ণুপদ ভট্টাচার্য্য, জয়ন্ত চক্রবর্তী, মিসফাক আহমদ মিশু, রাকেশ চন্দ্র শর্ম্মা, রনজিৎ ধর রন, এডভোকেট কিশোর কুমার কর, মো: শাহ নূর, সিলেট জেলা যুব কমান্ডের আহ্বায়ক মনোজ কপালী মিন্টু প্রমুখ।

মানববন্ধন ও সমাবেশে দাবি জানান ‘১৯৭২ সালের সংবিধান ফিরত চাই’ প্রয়োজনে বিচার বিভাগীয় কমিশন গঠন করে বঙ্গবন্ধুর তৈরি ৭২ এর সংবিধান কার্যকর করা হোক। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কালো রাতের হত্যাকান্ডের মুল হোতা এবং ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বরের জেল হত্যার মূল হোতাদের বিচার করে রায় কার্যকর করতে হবে। জরুরী ভিত্তিতে ধর্মীয় এবং জাতীয় সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন প্রয়োজন ও বাস্তবায়ন করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর দল আওয়ামী লীগ থেকে স্বাধীনতা বিরোধী শক্তিকে চিহিৃত করে বহিস্কার করতে হবে।

সিলেট প্রতিদিন/এমএনআই

ফেসবুক পেইজ